Friday , 30 October 2020
আপডেট
Home » অনলাইন » চতুর্থ দিনে ১২২ জন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার
চতুর্থ দিনে ১২২ জন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার

চতুর্থ দিনে ১২২ জন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার

নিজস্ব সংবাদদাতা: জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার চতুর্থ দিনে ৬২ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। এ দিন অসাধুপন্থা অবলম্বন করায় ১২২ জন শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।
এর আগে পরীক্ষা শুরুর প্রথম দিন বুধবার (১ নভেম্বর) অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে ১৬ পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়। দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার বহিষ্কার করা হয় ১৯ জনকে।
তৃতীয় দিন গতকাল শনিবার জেএসসির কোনো পরীক্ষা ছিল না। এদিন শুধু জেডিসির পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় ২০ হাজারেরও বেশি পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। আর অসাধুপন্থা অবলম্বনের কারণে ১২ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়।
রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং বিভাগ থেকে পাঠানো তথ্যে এসব চিত্র উঠে এসেছে।
আজ জেএসসির ইংরেজি ১ম পত্র, জেডিসির আরবি ২য় পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ পরীক্ষায় সব কয়টি বোর্ডে মোট ২৩ লাখ ৯০ হাজার ১৩৪ জন পরীক্ষার্থী অংশগ্রহণের কথা থাকলেও ৬২ হাজার ৬১৮ জন শিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। এছাড়াও অসাধু কার্যক্রমের অপরাধে আজ প্রথমবারের মতো একজন শিক্ষক বহিষ্কার হয়েছেন।
জানা গেছে, জেএসসি পরীক্ষায় ঢাকা শিক্ষা বোর্ডে মোট শিক্ষার্থী সংখ্যা ছিল ৬ লাখ ৮৪ হাজার ৫৪৫ জন। এরমধ্যে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ৬ লাখ ৬৯ হাজার ৭০২ জন। আর অনুপস্থিত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ১৪ হাজার ৮৪৩ জন। এর মধ্যে পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের জন্য ঢাকা বোর্ডে বহিষ্কার হয়েছে ৫৮ জন শিক্ষার্থী।
রাজশাহী বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২ লাখ ৪০ হাজার ২৪১ জন। পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ২ লাখ ৩৫ হাজার ৭৭০ জন। অনুপস্থিত ছিলেন ৪ হাজার ৪৭১ জন। বহিষ্কার হয়েছে ৪ জন শিক্ষার্থী।
কুমিল্লা বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২ লাখ ৪১ হাজার ৪২৭ জন। পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ২ লাখ ৩৭ হাজার ২৩৩ জন। অনুপস্থিত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪ হাজার ১৯৪ জন। বহিষ্কার হয়েছে ৯ জন শিক্ষার্থী।
যশোর শিক্ষা বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২ লাখ ২০ হাজার ৫১৩ জন। পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ২ লাখ ১৫ হাজার ৩৫০ জন। অনুপস্থিত ছিল ৫ হাজার ১৬৩ জন শিক্ষার্থী। এ বোর্ডে বহিষ্কার নেই।
চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৭৯ হাজার ৩১১ জন। পরীক্ষায় অংশ নেয় ১ লাখ ৭৬ হাজার ১৫৮ জন। আর অনুপস্থিত ছিল ৩ হাজার ১৫৩ জন। বহিষ্কার হয়েছে ৫ জন শিক্ষার্থী। এছাড়াও অনৈতিক কাজের জন্য একজন পরিদর্শককে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ পরীক্ষায় প্রথমবারের মতো একজন শিক্ষককে বহিষ্কার করা হয়।
সিলেট শিক্ষা বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ৩৫ হাজার ৭ জন। আর পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ১ লাখ ৩২ হাজার ৪৭২ জন। অনুপস্থিত ছিল ২ হাজার ৫৩৫ জন। বহিষ্কার হয়েছে একজন শিক্ষার্থী।
বরিশাল বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী সংখ্যা ছিল ১ লাখ ২১ হাজার ৯৪ জন। আর পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন ১ লাখ ১৭ হাজার ৬৪৬ জন। অনুপস্থিত শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ হাজার ৪৪৮ জন। এ বোর্ডে বহিষ্কার হয়েছে ১৩ জন শিক্ষার্থী।
দিনাজপুর বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী সংখ্যা ছিল ২ লাখ ২৮ হাজার ৪৬৭ জন। পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ২ লাখ ২৫ হাজার ১৮৬ জন। অনুপস্থিত ছিল ৩ হাজার ২৮১ জন। বহিষ্কার হয়েছে ১ জন।
মাদ্রাসায় জেডিসিতে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৩ লাখ ৭০ হাজার ৭৯৫ জন। পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ৩ লাখ ৪৯ হাজার ২৬৪ জন। এই বোর্ডে অনুপস্থিত ছিল ২১ হাজার ৫৩০ জন। বহিষ্কার হয়েছে ৩১ জন শিক্ষার্থী।
জানা গেছে, এবারও বাংলা দ্বিতীয় পত্র, ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র ছাড়া অন্যসব বিষয়ের পরীক্ষা সৃজনশীল প্রশ্নে নেয়া হবে। এ বছর থেকে নিয়মিত শিক্ষার্থীদের শারীরিক শিক্ষা ও স্বাস্থ্য, কর্ম ও জীবনমুখী শিক্ষা এবং চারু ও কারুকলা বিষয়ের পরীক্ষা হবে না। তিন বিষয়ে শিক্ষার্থীদের ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে সরবরাহ করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
গত বুধবার জেএসসিতে বাংলা প্রথম পত্র ও জেডিসিতে কুরআন মাজিদ ও তাজবিদ পরীক্ষার মাধ্যমে এ পরীক্ষা শুরু হয়েছে। পরীক্ষা শেষ হবে আগামী ১৮ নভেম্বর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*