Thursday , 3 December 2020
আপডেট
Home » অনলাইন » রসিক নির্বাচন নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য হবে: সিইসি
রসিক নির্বাচন নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য হবে: সিইসি

রসিক নির্বাচন নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য হবে: সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক: রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচন নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। তিনি বলেন, আমাদের বিধিবিধানে যা আছে সেগুলোর আলোকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত করবো।
রোববার রসিক নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি এই কথা বলেন।
রংপুর সিটি নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের পরিকল্পনা আছে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করবো ইভিএম ব্যবহারের। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে সীমিত আকারে ইভিএম ব্যবহার করবো।’ ইভিএম মেশিন পুরনোটা ব্যবহার হবে কি না এর জবাবে সিইসি বলেন, ‘নতুন মেশিন ব্যবহার হবে।’
এর আগে ইভিএম ব্যবহারে কিছু ভুলও ধরা পড়েছিল এ ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে সিইসি বলেন, ‘এটা বিবেচনার রেখেই আমরা ইভিএম ব্যবহার করবো। ভুল যেন পুনরাবৃত্তি না হয়। নির্ভুলভাবে ও গ্রহণযোগ্যভাবে যেন ব্যবহার করা হয় সেটা লক্ষ্য রাখব। ভুল-ভ্রান্তির আশঙ্কা থাকলে আমরা ইভিএম ব্যবহারের ঝুঁকি নেব না।’
রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সিসি ক্যমেরা ব্যবহার করা হবে কি না এ প্রশ্নের জবাবে কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘এটা একটু ব্যয়বহুল। আমরা সীমিত আকারে সিসি ক্যমেরা ব্যবহার করতে চাই।’
প্রার্থীদের পোস্টারে রংপুর ছেয়ে গেছে। অনেক প্রার্থী তফসিল ঘোষণার আগেই আগাম ২০ থেকে ২৫ লাখ টাকা খরচ করেছেন এমন খবরও আছে। এ ব্যাপারে এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘এটা এখন সিদ্ধান্ত নেইনি। কমিশনের সঙ্গে বসতে হবে। কী অবস্থায় আছে এটা আমরা দেখবো। কে পোস্টার লাগিয়েছে তাদের বের করার একটা বিষয় আছে। এটা কমিশনের সঙ্গে বসে সিদ্ধান্ত নেব। আমরা আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।’
এসময় নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এটা বুঝতে হবে প্রার্থী কিন্তু এখনো চূড়ান্ত হয়নি। আপনারা প্রশ্ন করেছেন ‘তফসিলের আগে খরচ করেছে’। এখন এ টাকা খরচ প্রার্থী করেছে, না অন্য কেউ করছে এখনোতো আমরা বলতে পারবো না। আর পোস্টার সরানোর বিষয়টা হলো, এতদিন সিটি করপোরেশন আইনে অধীনে ওগুলো সরাতে বলেছিলাম। এখন আমরা নির্বাচনী আইনের অধীনে এগুলো সরানোর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’
অনলাইনে মনোনায়ন জমা দেয়ার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার যতটুকু জানা আছে অনলাইনে জমা দেয়ার বিষয়ে সিটি করপোরেশনে এমন কোনো প্রভিশন নেই। আমরা চেষ্টা করবো আইন সংস্কারের জন্য। এটা ইমপ্রুভ করলে পরবর্তী সময়ে এটা বিবেচনা করতে পারবো।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*