Thursday , 22 October 2020
আপডেট
Home » খেলাধুলা » জেএফএ অনূর্ধ্ব-১৪ জাতীয় মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপে ফাইনালে ঠাকুরগাঁও ও ময়মনসিংহ
জেএফএ অনূর্ধ্ব-১৪ জাতীয় মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপে ফাইনালে ঠাকুরগাঁও ও ময়মনসিংহ

জেএফএ অনূর্ধ্ব-১৪ জাতীয় মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপে ফাইনালে ঠাকুরগাঁও ও ময়মনসিংহ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : জেএফএ অনূর্ধ্ব-১৪ জাতীয় মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠেছে ঠাকুরগাঁও ও ময়মনসিংহ জেলা দল। বুধবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রথম সেমিফাইনালে টাঙ্গাইল জেলাকে টাইব্রেকারে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে নাম লেখায় ঠাকুরগাঁও। নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলের সমতা নিয়ে শেষ হয়। দিনের অপর সেমিফাইনালে রাজশাহী জেলাকে ৪-০ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে ময়মনসিংহ জেলা দল। শুক্রবার ফাইনালে মুখোমুখি হবে দল দুটি। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ঠাকুরগাঁও জেলার সঙ্গে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করে টাঙ্গাইল জেলা। অবশ্য ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে গিয়েছিল ঠাকুরগাঁও। ম্যাচের ৩ মিনিটে ঠাকুরগাঁও এর কল্পনা গোল করে এগিয়ে নেন দলকে। তার গোলে ভর করে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিশ্রামে যায় ঠাকুরগাঁও এর মেয়েরা। বিরতির পর ম্যাচে সমতা ফেরায় টাঙ্গাইল। ৪৪ মিনিটের সময় টাঙ্গাইলের ইলা মনি গোল দলকে লড়াইয়ে ফেরান। তাতে নির্ধারিত সময়ের খেলা ১-১ গোলের সমতা নিয়ে শেষ হয়। ফলে ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। টাইব্রেকার নামক ভাগ্য পরীক্ষায় টাঙ্গাইলকে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে নাম লেখায় ঠাকুরগাঁও।
এদিকে রাজশাহীর বিপক্ষে বেশ প্রভাব বিস্তার করে খেলে ময়মনসিংহ। গতকালকের পর আজও হ্যাটট্রিক করেন ময়মনসিংহের রনি আক্তার। ম্যাচের ১১, ২৩ ও ৬৮ মিনিটে গোল তিনটি করেন তিনি। ২৬ মিনিটে অপর গোলটি করেন সালমা আক্তার। তাতে ৪-০ গোলের ব্যবধানে রাজশাহীকে উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালের টিকিট বগলদাবা করে ময়মনসিংহের মেয়েরা।
শুক্রবার বিকেল ৩টায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে ঠাকুরগাঁও ও ময়মনসিংহ। চ্যাম্পিয়ন দল ৫০ হাজার ও রানার্স-আপ দল ২৫ হাজার টাকা প্রাইজমানি পাবে। টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় ও সর্বোচ্চ গোলদাতা ৫ হাজার টাক করে পাবে। এ ছাড়া পাওয়ার স্পন্সর ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড়, ফাইনালের সেরা খেলোয়াড়, সর্বোচ্চ গোলদাতা, সেরা গোলরক্ষক, সেরা রক্ষণভাগ, সেরা মিডফিল্ড ও সেরা আক্রমণভাগের খেলোয়াড়কে হোম অ্যাপ্লায়েন্স দিয়ে উৎসাহিত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*