Thursday , 26 November 2020
আপডেট
Home » রাজনীতি » নির্বাচনে সেনা মোতায়েন কমিশনের বিষয়: হানিফ
নির্বাচনে সেনা মোতায়েন কমিশনের বিষয়: হানিফ

নির্বাচনে সেনা মোতায়েন কমিশনের বিষয়: হানিফ

নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, ‘নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়ার বিধান অতীতে কখনো ছিল না। সেনা মোতায়েন করা না করা এটা কমিশনের বিষয়।’
সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় কুষ্টিয়া সরকারি কলেজে নব-নির্মিত শেখ হাসিনা হলের উদ্বোধন ও নবীনবরণ অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার আগে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।
রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দেওয়া বক্তব্যকে ‘সত্যের অপলাপ’ আখ্যা দিয়ে মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, খালেদা জিয়া মিথ্যাচার করে জাতিকে বিভ্রান্ত করেছেন।
তিনি বলেন, ‘জনগণ জানে ২০০১ সালে তারা ক্ষমতায় আসার পর কীভাবে জোর করে সরকারি কর্মকর্তাদের অবসরে দিয়েছিল, আওয়ামী-মনা সরকারি কর্মকর্তাদের চাকরি থেকে বরখাস্ত করেছিল। তিনিই (খালেদা জিয়া) প্রথম এ দেশে প্রতিহিংসার রাজনীতি চালু করেছিলেন, আর এখন আওয়ামী লীগকে বলছেন প্রতিহিংসার রাজনীতি থেকে বেরিয়ে আসতে।’
আগামী জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই সরকারের অধীনে সংবিধান অনুযায়ীই নির্বাচন হবে।
নির্বাচনে ইভিএমের বিপক্ষে বিএনপির অবস্থানের সমালোচনা করে হানিফ বলেন, ‘বিএনপি ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য ১ কোটি ৩০ লাখ ভুয়া ভোটার বানিয়েছিল। সেই জন্য তারা ইভিএম পদ্ধতি চায় না।’
নির্বাচনে সেনা মোতায়েন এবং তাদের বিচারিক ক্ষমতা দেওয়ার বিএনপির দাবি প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, ‘নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়ার বিধান অতীতে কখনো ছিল না। সেনা মোতায়েন করা না করা— এটা কমিশনের বিষয়।’
কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ কাজি মনজুর কাদির, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ সদর উদ্দিন খান, সিনিয়র সহসভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী রবিউল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*