Wednesday , 2 December 2020
আপডেট
Home » গরম খবর » রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন আবদুল হামিদ
রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন আবদুল হামিদ
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন আবদুল হামিদ

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের কাছ থেকে তার পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ।
নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কর্তার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল ৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত। মনোনয়নপত্র পরীক্ষা ৭ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে শেষ না হওয়া পর্যন্ত, প্রত্যাহার ১০ ফেব্রুয়ারি বিকেল চারটা পর্যন্ত এবং সংসদ ভবনে ভোটগ্রহণ করা হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি বিকেল দুইটা থেকে পাঁচটা পর্যন্ত।
এরআগে গত ৩১ জানুয়ারি গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায় আবদুল হামিদকে রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়ন দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। গতকাল ১ ফেব্রুয়ারি রাতে বঙ্গভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা- রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকে দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে দলের মনোনয়ন প্রদানের সিদ্ধান্তের কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে আসেন।
রাষ্ট্রপতির একজন মুখপাত্র জানান, বৃহস্পতিবার রাতে প্রধানমন্ত্রী বঙ্গভবনে সাক্ষাৎ করে রাষ্ট্রপতি পদে আবদুল হামিদকে মনোনয়ন দেয়ার আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্ত সম্বলিত চিঠি আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন।
সংসদে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় আবদুল হামিদের দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নেয়া এখন আনুষ্ঠানিকতা মাত্র।
বাংলাদেশের আইনে এক ব্যক্তি সর্বোচ্চ দুই মেয়াদে রাষ্ট্রপ্রধানের দায়িত্বে থাকতে পারেন। ফলে এবার নির্বাচিত হলে এটাই হবে আবদুল হামিদের শেষ মেয়াদ।
এর আগে, ২০১৩ সালে তৎকালিন রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের মৃত্যুর পর ২৪ মার্চ থেকে ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন আবদুল হামিদ। পরে ২২ এপ্রিল তিনি বাংলাদেশের ২০তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব গ্রহণ করেন ২৪ এপ্রিল।
আগামী ২৩ এপ্রিল তার ৫ বছর মেয়াদ পূর্ণ হবে। আবদুল হামিদ রাষ্ট্রপতি হওয়ার আগে ৭ বার কিশোরগঞ্জ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং স্পিকার হিসেবে দু’বার দায়িত্ব পালন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*