Wednesday , 2 December 2020
আপডেট
Home » তথ্য ও প্রযুক্তি » বাংলালিংক প্রকাশ করলো আইটি খাতের ডিজিটাল অন্ট্রোপ্রেনিউরিয়াল ইকোসিস্টেম ইন বাংলাদেশ
বাংলালিংক প্রকাশ করলো আইটি খাতের ডিজিটাল অন্ট্রোপ্রেনিউরিয়াল ইকোসিস্টেম ইন বাংলাদেশ

বাংলালিংক প্রকাশ করলো আইটি খাতের ডিজিটাল অন্ট্রোপ্রেনিউরিয়াল ইকোসিস্টেম ইন বাংলাদেশ

আজকের প্রভাত প্রতিবেদক : বাংলাদেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক শনিবার বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টারে (বিআইসিসি) অনুষ্ঠিত বেসিস সফট্ এক্সপো ২০১৮-তে “ডিজিটাল অন্ট্রোপ্রেনিউরিয়াল ইকোসিস্টেম ইন বাংলাদেশ” শীর্ষক আইটি খাতের উন্নয়ন বিষয়ক একটি গবেষণা পত্র আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করেছে। গবেষণা পত্রটি উপস্থাপন করেন বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট এ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান। এছাড়া উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বেসিস-এর প্রেসিডেন্ট সৈয়দ আলমাস কবির, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক অথরিটি-এর (বিএইচটিপিএ) ম্যানেজিং ডিরেক্টর হোসনে আরা বেগম, বাংলালিংকের ডিজিটাল সার্ভিসেস ডিরেক্টর আব্দুল মুকিত আহমেদ এবং প্রতিষ্ঠানটির উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ।
গ্লোবাল ম্যানেজমেন্ট কনসাল্টিং ফার্ম “এটি কার্নির” পরিচালনায় এই গবেষণা পত্রটি বাংলালিংক-এর সত্ত্বাধিকারী প্রতিষ্ঠান ভিয়নের “মেক ইওর মার্ক” প্রোগ্রামের অন্তর্ভুক্ত। গবেষণা পত্রটিতে বাংলাদেশের ডিজিটাল উদ্যোগের বর্তমান পরিস্থিতির বিশ্লেষণসহ ভবিষ্যতে এর উন্নয়নের জন্য সম্ভাব্য পদক্ষেপসমূহ আলোচিত হয়েছে। উক্ত অনুষ্ঠানে গবেষণাপত্র প্রকাশের পাশাপাশি বেসিসের প্রেসিডেন্ট সৈয়দ আলমাস কবিরের সঞ্চালনায় হাউ বাংলাদেশ ক্যান বিল্ড এ্যান ইফেকটিভ ডিজিটাল ইকোসিস্টেম/ কিভাবে বাংলাদেশ কার্যকর ডিজিটাল পরিকাঠামো গঠন করতে পারে” শীর্ষক প্যানেল আলোচনার আয়োজনা করা হয়। এই আলোচনায় বক্তা হিসেবে অংশগ্রহণ করেন বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট এ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান, ডেভোটেক-এর চেয়ারম্যান ও সিইও রায়হান শামসি, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক অথরিটি-এর (বিএইচটিপিএ) ম্যানেজিং ডিরেক্টর হোসনে আরা বেগম, ব্র্যাক-এর সিনিয়র ডিরেক্টর, স্ট্র্যাটেজি, কমিউনিকেশন এ্যান্ড এমপাওয়ারমেন্ট আসিফ সালেহ এবং ডক্টরোলার ম্যানেজিং ডিরেক্টর এ্যান্ড সিইও আব্দুল মতিন ইমন।
বাংলালিংক-এর চিফ কর্পোরেট এ্যান্ড রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স অফিসার তাইমুর রহমান বলেন, বাংলাদেশের অন্যতম ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেশের ডিজিটাল পরিকাঠামোর উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে অবদান রাখা আমাদের কর্তব্য। বাংলালিংক ইতোমধ্যে বাংলালিংক আইটি ইনকিউবেটর সহ বেশ কিছু উদ্যোগ নিয়েছে, যা তরুণদেরকে আইটি খাতের উন্নয়নে কাজ করতে উদ্বুদ্ধ করেছে। আমি আশা করছি, আজ প্রকাশিত হওয়া এই গবেষণাপত্র নীতি নির্ধারকদের দেশের ডিজিটাল পরিকাঠামোর উন্নয়নের জন্য পরিকল্পনা তৈরিতে সাহায্য করবে।
গ্রাহকদের সেবা প্রদানের পাশাপাশি বাংলালিংক দেশের ডিজিটাল পরিকাঠামোর সার্বিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। সম্প্রতি বাংলালিংকের চালু করা ফোর জি সেবা দেশের আইটি খাতের সম্প্রসারণে অবদান রাখবে বলে প্রত্যাশা করছে প্রতিষ্ঠানটি। ভবিষ্যতেও আইটি খাতে অবদান রাখতে অভিনব বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করতে চায় বাংলালিংক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*