Saturday , 31 October 2020
আপডেট
Home » তথ্য ও প্রযুক্তি » দেশের বাজারে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৯ প্লাস আসছে
দেশের বাজারে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৯ প্লাস আসছে

দেশের বাজারে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৯ প্লাস আসছে

আজকের প্রভাত প্রতিবেদক : দেশের বাজারে স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৯ প্লাস আনতে যাচ্ছে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ। শনিবার রাজধানীর লেকশোর হোটেলে আয়োজিত একটি ওয়ার্কশপে এ তথ্য জানানো হয়। ওয়ার্কশপে স্যামসাংয়ের নতুন ফোনের ফিচারগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন স্যামসাং বাংলাদেশের ট্রেনিং ম্যানেজার মোহাম্মদ শাহরিয়ার। এটি আগামী ৮ মার্চ থেকে বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যাবে। ফোনটির বিশেষত্ব হলো এটি সবচেয়ে আধুনিক প্রযুক্তির ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে।
এছাড়াও ফোনটির ডিজাইনেও পরিবর্তন আনা হয়েছে। ফোনটির দাম ১ লাখ ৫ হাজার ৯০০ টাকা। এদিকে এখন থেকে ফোনটি কেনার জন্য গ্রাহকরা প্রি-অর্ডার করতে পারবেন। প্রি-অর্ডার চলবে ২৮ মার্চ পর্যন্ত। এরপর ফোনটি গ্রাহকদের হাতে তুলে দেয়া হবে। যারা আগে থেকে কেনার জন্য ফরমায়েশ দেবেন তারা পাবেন ৫ হাজার ৯০০ টাকা মূল্যমানের ওয়ারলেস চার্জিং ডক। স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশের পণ্য ব্যবস্থাপক শাহরিয়ার হোসেন বলেন, এ যাবৎকালের সেরা ফোন স্যামসাং গ্যালাক্সি এস নাইন প্লাস। এটি ডিএসএলআর ক্যামেরার বিকল্প হিসাবে কাজ করবে। কেননা, এতে উন্নতমানের ক্যামেরা সংযোজন করা হয়েছে। ফোনটি গ্রাহকদের দেবে অনন্য অভিজ্ঞতা। ওয়ার্কশপে জানানো হয়, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ৯ প্লাসের সবচেয়ে বড় পরিবর্তন এসেছে ক্যামেরায়। এই স্মার্টফোনে উন্নতমানের ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। যেটাতে গ্রাহকরা ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা, ডুয়াল অ্যাপারচার, অ্যাপারচার ১.৫ এবং লাইভ ফোকস ও ইফেক্টস সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। এ ছাড়াও ওই স্মার্টফোনে ওয়াটার এবং ডাস্ট রেজিস্ট্যান্স, লো এনার্জি পাওয়ার এফিসিয়েন্ট প্রসেসর, ৪০০ জিবি এক্সটারনাল মেমোরি, ৬ জিবি র‌্যাম, ইন্টিলিজেন্ট স্ক্যান, নতুন স্টেরিও স্পিকার এবং অ্যাপ পেয়ার ব্যবহার করা হয়েছে।
এ ছাড়া এই সেটটির মাধ্যমে সুপার স্লো-মোশন ভিডিও করা যাবে। সেটটির মাধ্যমে ৯৬০ এফপিএস-এ শুট করা যাবে। ৩২ী স্লো-মোশন ভিডিওর মাধ্যমে দশমিক ২ সেকেন্ডের অ্যাকশন ভিডিও হয়ে যাবে ৬ সেকেন্ডের অ্যাকশন ভিডিও। ফোনটির ক্যামেরা ব্যবহার করে চেহারা স্ক্যান করে ১৮টি অ্যাভাটার তৈরি করা যাবে। এই অ্যাভাটারগুলো দিয়ে বিভিন্ন রকম ভিডিও ও জিআইএফ ফাইল তৈরি করা যাবে। এ ছাড়া এই ইমোজিগুলো বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে শেয়ার করা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*