Tuesday , 27 October 2020
আপডেট
Home » খেলাধুলা » আজ মারিয়া-আঁখিদের প্রথম পরীক্ষা মালয়েশিয়ার বিপক্ষে
আজ মারিয়া-আঁখিদের প্রথম পরীক্ষা মালয়েশিয়ার বিপক্ষে

আজ মারিয়া-আঁখিদের প্রথম পরীক্ষা মালয়েশিয়ার বিপক্ষে

ক্রীড়া প্রতিবেদক: জকি ক্লাব গার্লস ইন্টারন্যাশনাল ইয়ুথ ইনভাইটেশনাল ফুটবল টুর্নামেন্টে প্রথম পরীক্ষা দিতে আজ শুক্রবার মাঠে নামছে মারিয়া মান্দা-আঁখি খাতুনরা। এদিন হংকংয়ের সিউ সাই ওয়ান স্পোর্টস গ্রাউন্ডে মালয়েশিয়ান মেয়েদের মোকাবেলায় মাঠে নামবে বাংলাদেশের কিশোরীরা।
অনুর্ধ্ব-১৫ বয়সী মেয়েদের চার জাতি আমন্ত্রণমূলক এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে বৃহস্পতিবার সকালে হংকংয়ে পৌঁছেছে গোলাম রব্বানী ছোটনের সুযোগ্য শিষ্যারা। টুর্নামেন্টে স্বরনীয় সূচনা করতে চায় বাংলাদেশ দল। হংকং পৌঁছে দলের কোচ ছোটন বলেন, ‘আমরা প্রথম ম্যাচকে গুরুত্বসহকারে নিয়েছি। সামর্থর শতভাগ দিয়ে খেলে জয় দিয়ে শুরু করতে চাই।
দেশ ছাড়ার আগে অধিনায়ক মারিয়া মান্দা বলেছেন ভাল ফল পেতে হলে কষ্ট করতে হয়। আমরা অনেকদিন ধরেই সেই কষ্ট করে যাচ্ছি। প্রায় প্রতিদিন কঠোর অনুশীলন করেছি। সিনিয়রদের সঙ্গে একাধিক প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছি। সেই ম্যাচগুলোতে নিজেদের ভুল সংশোধন করেছি। আমরা যেভাবে সাফে চ্যাম্পিয়ন হয়েছি,হংকংয়েও সেভাবে খেলে শিরোপা জিততে চাই।
এই টুর্নামেন্টের খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবে রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে। যে দল সবচেয়ে বেশি পয়েন্ট পাবে তারাই চ্যাম্পিয়ন হবে। বাংলাদেশের চোখ সেই শিরোপাতেই। এক্ষেত্রে মারিয়াদের প্রেরনা জোগাচ্ছে সর্বশেষ সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন ট্রফি। যদিও মালয়েশিয়ার জুনিয়র টিমের সঙ্গে লাল-সবুজরা কখনই খেলেনি। তবে সিনিয়র টিমের সঙ্গে খেলার অভিজ্ঞতা আছে।
দেশ ছাড়ার আগে বাংলাদেশ দলের কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলে গেছেন গত ডিসেম্বরে তার দল যেভাবে খেলে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল, হংকংয়ে ঠিক সেই খেলাটাই খেলতে পারলেই চ্যাম্পিয়ন হতে পারবে এবং এ নিয়ে তিনি আত্মবিশ্বাসী এবং আশাবাদী। তার লক্ষ্য হলো ম্যাচ বাই ম্যাচ খেলা। প্রতিটি ম্যাচের জন্য আলাদা পরিকল্পনা সাজাতে হবে। ম্যাচ বাই ম্যাচ জেতার জন্য নামবেন।
বাংলাদেশ দল: গোলরক্ষক- মাহমুদা আক্তার, রূপনা চাকমা; ডিফেন্ডার- আঁখি খাতুন (সহ-অধিনায়ক), নিলুফা ইয়াসমীন নীলা, আনাই মগিনি, নাজমা, দীপা খাতুন, রুনা আক্তার, রুমি আক্তার; মিডফিল্ডার- মারিয়া মান্দা, মনিকা চাকমা, লাবনী আক্তার, তহুরা খাতুন, মুন্নী আক্তার, শামসুন্নাহার, সোহাগী কিসকু; ফরোয়ার্ড- ঋতুপর্ণা চাকমা, সাজেদা খাতুন, আনুচিং মগিনি, শামসুননাহার, কোচ- গোলাম রব্বানী ছোটন, সহকারী কোচ- মাহবুবুর রহমান লিটু, মাহমুদা আক্তার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*