Thursday , 22 October 2020
আপডেট
Home » তথ্য ও প্রযুক্তি » সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট সেবা প্রদানে আন্তর্জাতিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত
সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট সেবা প্রদানে আন্তর্জাতিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সাশ্রয়ী মূল্যে ইন্টারনেট সেবা প্রদানে আন্তর্জাতিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

আজকের প্রভাত প্রতিবেদক : ইন্টারনেট সেবা দ্রুত, কম খরচে জনগণের কাছে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে প্রযুক্তি সেক্টর জোট অ্যালায়েন্স ফর এফরড্যাবল ইন্টারনেটসহ (এফরএআই) বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে গত বুধবার এটুআই প্রোগ্রামের উদ্যোগে দ্বিতীয় বারের মতো “বাংলাদেশ ন্যাশনাল মাল্টি-স্টেকহোল্ডার কোয়ালিশন” বিষয়ক দিনব্যাপী কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের করবী হলে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এটুআই এর পলিসি অ্যাডভাইজর আনীর চৌধুরী, এফরএআই-এর নির্বাহী পরিচালক সোনিয়া জর্জ এবং এফরএআই-এর এশিয়া কো-অর্ডিনেটর বি. শাদ্রাখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন এটুআই প্রোগ্রামের আইটি ম্যানেজার মো. আরফে এলাহী।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোস্তফা জব্বার বলেন, ২০২১ সালে স্বাধীনতার ৫০ তম বার্ষিকীতে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে আমাদের যে ভিশন সে লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। আর সেই লক্ষ্য অর্জনে ইন্টারনেট সেবাকে আরো সহজ করা প্রয়োজন। শেখ হাসিনা সরকার ইন্টারনেটের সংযোগ স্থাপনের উপর এবং একই সাথে খরচ, নিরাপত্তা ও মানের উপর বিশেষ গুরুত্বরোপ করেছে।
তিনি আরো বলেন, যেসব অঞ্চলে ব্রডব্যান্ড সেবা পৌঁছে দেয়া সম্ভব হচ্ছে না সেসব অঞ্চলে স্যাটেলাইট এর মাধ্যমে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেওয়ার কাজ করছে সরকার”। কর্মশালায় উপস্থিত বিশেষজ্ঞরা দাবি করেন, বর্তমানে প্রান্তিক জনগোষ্ঠিরা ভাল মানের ইন্টারনেট সেবা থেকে বঞ্চিত। ইন্টারনেটকে আরও সহজলভ্য করার জন্য এটুআই এবং এফরএআই যৌথভাবে ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে সহজলভ্য ইন্টারনেট সেবা প্রদানে একটি রোডম্যাপ প্রণয়ন করবে এবং সুপারিশমালা পেশ করবে।
সুশারিশমালায় ইন্টারনেটকে আরও সহজলভ্য করে গ্রাম পর্যন্ত পৌঁছানোর পদ্ধতি সম্পর্কিত দিক নির্দেশনা থাকবে। এছাড়া যেখানে ব্রডব্যান্ড ক্যাবল পৌঁছানো সম্ভব নয় সেখানে স্যাটেলাইট এর মাধ্যমে সহজলভ্য এবং দ্রুত গতি সম্পন্ন ইন্টারনেট কিভাবে প্রদান করা হবে সে বিষয়ে দিক নির্দেশনা থাকবে। দীর্ঘদিন যাবত সহজলভ্য ইন্টারনেট ব্যবহার করে সরকারি সেবা জনগণের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দিতে এটুআই সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের মধ্যে সমন্বয় সাধন করে আসছে। অন্যদিকে সারা বিশ্বে ইন্টারনেট সহজে এবং কম খরচে জনগণের কাজে পৌঁছে দিতে নীতিনির্ধারণী ক্ষেত্রে সহায়তা প্রদান করে আসছে এফরএআই। ইতোমধ্যে এটুআই এবং এফরএআই এ বিষয়ে দীর্ঘমেয়াদি সমন্বয় সাধনে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় সমন্বয় সাধনের অগ্রগতি বিষয়ে দিনব্যাপী এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
কর্মশালার মূল উদ্দেশ্য ছিল কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠান সমন্বয়ে ইন্টারনেট সেবার গ্রহণযোগ্য মূল্য নির্ধারণ এবং সারাদেশে তা বাস্তবায়ন করা। বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে পাবলিক এক্সেস সেন্টার গড়ে তোলার জন্য টেকসই কৌশল নির্ধারণ এবং অবকাঠামো তৈরি ও ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা বাড়ানোর কৌশল নির্ধারণে কাজ করবে। ‘এফরএআই’ বিশ্বব্যাপী ৮০ সদস্যের একটি জোট, যা পাবলিক, প্রাইভেট এবং অলাভজনক প্রতিষ্ঠান (যেমন: সিডা, ইউএসএইড, ইউএনউইমেন, গুগল, জিএসএম এবং ইন্টারনেট সোসাইটি) এর সমন্বয়ে ইন্টারনেট খরচ কমানোর ক্ষেত্রে নীতিমালা প্রণয়ন এবং পরামর্শকের ভূমিকা পালন করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।
উলেখ্য, ইউএনডিপি ও ইউএসএইড এর কারিগরি সহযোগিতায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রোগ্রাম কম সময়ে, কম খরচে এবং কম যাতায়াতের মাধ্যমে জনগণের দোরগোড়ায় সরকারি-বেসরকারি সেবা পৌঁছে দেয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায়, সংশ্লিষ্ট দেশ এবং দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞ ও প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে একটি আন্তর্জাতিক জোট গঠন করে ইন্টারনেট সমস্যার সমাধানে কাজ করার জন্য উভয় প্রতিষ্ঠান বদ্ধ পরিকর। কর্মশালায় অন্যান্যদের মধ্যে এটুআই প্রোগ্রাম, এফরএআই, জিএসএমএ, ইউএনডিপি, ইউএসএইড, ইন্টারনেট অপারেটর, দেশের সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহ এর উচ্চ পর্যায়ের নীতি নির্ধারকগণ এবং গণমাধ্যম কর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*