Tuesday , 20 April 2021
আপডেট
Home » তথ্য ও প্রযুক্তি » বাংলাদেশে ৩০ বছর সম্পন্ন করলো ভিসা
বাংলাদেশে ৩০ বছর সম্পন্ন করলো ভিসা

বাংলাদেশে ৩০ বছর সম্পন্ন করলো ভিসা

আজকের প্রভাত প্রতিবেদক : ১৯৮৮ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশে ৩০ বছর সম্পন্ন করলো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ডিজিটাল পেমেন্ট প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ভিসা। প্রতিনিয়ত ডিজিটাল পেমেন্ট প্রযুক্তিতে নতুনত্ব আনার ধারাবাহিক প্রচেষ্টার ফলশ্রুতিতে আজ বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো কন্ট্যাক্টলেস কার্ড উন্মোচন করলো প্রতিষ্ঠানটি।
এছাড়াও অতিশীঘ্রই দেশের বাজারে কিউআরভিত্তিক পেমেন্ট সল্যুশন নিয়ে আসার ঘোষণা দিয়েছে তারা। দেশব্যাপি ডিজিটাল পেমেন্টের ব্যবহার ও গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে ভিসার নতুন দুটি প্রযুক্তি।
দক্ষিণ এশিয়া ও ভারতের গ্রুপ কান্ট্রি ম্যানেজার টিআর রামাচন্দ্র বলেন, ডিজিটাল পেমেন্ট সল্যুশনকে আরো জোরদার এবং গতিশীল করতে গত ৩০ বছর ধরে বাংলাদেশের আর্থিক প্রতিষ্ঠান, অংশীদার ও মার্চেন্টদের সঙ্গে আমাদের শক্তিশালী সম্পর্ক তৈরি হয়েছে। দেশের অর্থনীতিতে শীর্ষস্থানীয় ডিজিটাল পেমেন্ট সল্যুশন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে অব্যাহতভাবে ভূমিকা রাখতে পারায় আমরা গর্বিত।
ভিসা কনজ্যুমার পেমেন্ট এটিটিউড্স ষ্টাডি ২০১৭ অনুযায়ী, বাংলাদেশের ৬৫ শতাংশ মানুষ নতুন পদ্ধতির পেমেন্ট সল্যুশন গ্রহণ করতে প্রস্তুত যেখানে ৭৪ শতাংশ মানুষ মনে করে ডিজিটাল পদ্ধতি ব্যবহারের ফলে লেনদেন অনেক সহজভাবে করা যায়।
অংশীদার ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে শীঘ্রই কন্ট্যাক্টলেস কার্ড ব্যবসায়িকভাবে চালু করার প্রক্রিয়ায় রয়েছে ভিসা। ইএমভি চিপ প্রযুক্তির মাধ্যমে কন্ট্যাক্টলেস পেমেন্ট সল্যুশন প্রদান করবে প্রতিষ্ঠানটি। ব্যবহারকারীরা তাদের কন্ট্যাক্টলেস কার্ডটি কন্ট্যাক্টলেস রিডারের কাছাকাছি ধরলে মূহুর্তেই পেমেন্ট সম্পন্ন হয়ে যাবে। এক্ষেত্রে ব্যবহারকারীর স্বাক্ষর কিংবা পিন নম্বরের প্রয়োজন পড়বে না।
অন্যদিকে, বাংলাদেশে প্রথম ইএমভি ভিত্তিক ইন্টারোপেরেবল কিউআর পেমেন্ট সল্যুশন আনার ঘোষণা দিয়েছে ভিসা। দেশের প্রায় ১৪৯ মিলিয়নের বেশি মোবাইল ব্যবহারকারী (বিটিআরসি’র তথ্য মতে) যেখানে ফিচার ফোন ব্যবহারকারীর অন্তর্ভূক্ত, ফলে দক্ষিণ এশিয়ার এ দেশটিতে কিউআর প্রযুক্তির বিশাল একটি বাজার রয়েছে।
এ প্রসঙ্গে দক্ষিণ এশিয়া ও ভারতের গ্রুপ কান্ট্রি ম্যানেজার টিআর রামাচন্দ্র আরো বলেন, দেশের বাজারে ইএমভি পিনভিত্তিক কার্ড থেকে শুরু করে স্টেট-অব-দি-আর্ট কন্ট্যাক্টলেস প্রযুক্তির কার্ড এবং কিউআরভিত্তিক সল্যুশন চালু করার মধ্য দিয়ে ভিসা অভিনব ও অগ্রগামী ভূমিকা পালন করার ক্ষেত্রে দৃঢ়-প্রতিজ্ঞ। কাজের ক্ষেত্রে স্টেট-অব-দি-আর্ট কন্ট্যাক্টলেস প্রযুক্তির কার্ড ব্যবহাকারীদের দেবে অভিনব এক অভিজ্ঞতা এবং কিউআরভিত্তিক পেমেন্ট সল্যুশনের মাধ্যমে দেশের গণ মানুষ ব্যাপক সুবিধা উপভোগ করতে পারবে। আগামি বছরগুলোতে ডিজিটাল পেমেন্টের সম্ভাবনার বিষয়টি নিয়ে আমরা ব্যাপক উচ্ছসিত।
বাংলাদেশের বিশাল ক্যাশভিত্তিক অর্থনীতি প্রতিনিয়ত ডিজিটাল অর্থনীতিতে রূপান্তরিত হচ্ছে। সম্প্রতি ভিসার রুবিনি থটল্যাব ষ্টাডি কমিশনড পরিচালিত এক জরিপের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকায় বসবাসকারী ১৫,৮১৭,০০০ জন, যাদের জিডিপি ৪৭.৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। এ একটি মহানগরই বছরে ১.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার লভ্যাংশ গুনতে পারবে যদি তারা ডিজিটাল অর্থনীতিতে রূপান্তরিত হয়। হিসাব করে দেখা গিয়েছে এ শহরে আগামি ১৫ বছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে ৩৪.৯ বেসিস পয়েন্ট বৃদ্ধি এবং কর্মসংস্থানে ৪.৪ শতাংশ বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে।
দেশে কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি ক্লায়েন্ট ও মার্চেন্ট পার্টনারদের সঙ্গে নিজেদের উপস্থিতি আরো বিস্তৃত করার প্রত্যয় নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে ভিসা। বর্তমানে ৪৭টি সরকারি ব্যাংক, বেসরকারি ব্যাংক, আন্তর্জাতিক ব্যাংক এবং প্রায় ৩০,০০০ মার্চেন্টের সঙ্গে ডেবিট, ক্রেডিট, ব্যবসায়িক ও প্রিপেইড সেবার মাধ্যমে দেশব্যাপি সেবা দিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*