Wednesday , 14 April 2021
আপডেট
Home » অনলাইন » নেইমার জাদুতে কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিল
নেইমার জাদুতে কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিল

নেইমার জাদুতে কোয়ার্টার ফাইনালে ব্রাজিল

ক্রীড়া ডেস্ক : মেসি-রোনালদো পারেনি, কিন্তু নেইমার পেরেছেন। মেক্সিকানদের বিপক্ষে দুর্দান্ত নৈপুন্য প্রদর্শন করে ব্রাজিলকে রাশিয়া বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে তুলেছেন এই সুপার ষ্টার। নকআউট পর্বের এই ম্যাচে মেক্সিকোকে ২-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। সোমবার (২ জুলাই) রাশিয়ার সামারা স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় রাউন্ডের পঞ্চম ম্যাচে খেলার শুরু থেকেই একেরপর এক আক্রমণ চালায় ব্রাজিল। তবে মেক্সিকোর গোলরক্ষ গুইলের্মো ওচোয়ার দৃঢ়তায় সেই আক্রমণ বাতিল হয়ে যায়। যে কারণে প্রথমার্ধে গোলের একাধিক সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া হয় ব্রাজিলের। এদিন ম্যাচের দুই মিনিটেই আক্রমণে যায় মেক্সিকো। পঞ্চম মিনিটে পাল্টা আক্রমণ করে ব্রাজিল। কিন্তু ২০ গজ দুর থেকে নেইমারের মারা শট ঠেকান মেক্সিকান গোলরক্ষক। ২৫ মিনিটে আবারও নেইমারের শট আটকে দেন মেক্সিকোর গোলরক্ষক ওচোয়া। ৩২ মিনিটে কৌতিনহোর শট বাইরে দিয়ে যায়। মাঝে কিছুটা সময় পুরো আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে থাকে মেক্সিকো। তাদের মুহুর্মুহু কাউন্টার আক্রমণে দিশেহারা হয়ে পড়ে ব্রাজিলের রক্ষণভাগ। খেলার ৩৮ মিনিটে বল দখল করতে গিয়ে নেইমারের পায়ের উপর গিয়ে পরেন মেক্সিকোর এডিসন আলভারেজ। ফ্রি-কিক পায় ব্রাজিল। ডি বক্সের অনেক দূর থেকে নেইমারের নেয়া শটটি বারের সামান্য উপর দিয়ে চলে যায়। ফলে গোলশূণ্য প্রথমার্ধের সমাপ্তি ঘটে। দ্বিতীয়ার্ধে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে খেলে ব্রাজিল। ফলও পায় সেলেকাওরা। খেলার ৫১ মিনিটে নেইমারের গোলে এগিয়ে যায় ব্রাজিল। মাঝমাঠ থেকে টনের্ডো গতিতে বল নিয়ে ডি বক্সের সামান্য বাইরে থাকা উইলিয়ানকে পাস দেন নেইমার। উইলিয়ান বল নিয়ে ভেতরে ঢুকে নেইমারকে পাস দেন। তাতেই লক্ষ্যভেদ করেন ব্রাজিলিয়ান সুপারষ্টার। বিশ্বকাপে এটি তার দ্বিতীয় গোল। আর জাতীয় দলের হয়ে এনিয়ে ৫৭টি গোল করেছেন নেইমার। ব্রাজিলের হয়ে তিনিই সর্বোচ্চ গোল করেন। ৫৬ মিনিটে আবারো গোলের সুযোগ পেয়েছিলেন নেইমার। কিন্তু এবার তার শটটি গোলবারের উপর দিয়ে চলে যায়। ৫৯ মিনিটে ব্রাজিলের এগিয়ে যাওয়া রুখে দেন ওচোয়া। ডি বক্সের বাইরে থেকে পাউলিনহোর শট দুর্দান্ত ভঙ্গিমায় সেভ করেন পুরো ম্যাচে অসাধারণ খেলা ওচোয়া।
ম্যাচের ৬৩ মিনিটে উইলিয়ানের দারুণ শট ঠেকান ওচোয়া। ৬৯ মিনিটে ভালো একটি আক্রমণ প্রতিহত করেন অধিনায়ক থিয়াগো সিলভা। এরপর ম্যাচের ৮৬ মিনিটে বদলি হিসেবে মাঠে ঢোকেন রবার্তো ফিরমিনো। সাবেক লিভারপুল সতীর্থ কৌতিনহোর বদলে দলে সুযোগ মেলে তার। সুযোগ পেয়েই নিজেকে আরও একবার চেনান তিনি। ৮৮ মিনিটে নেইমারের সহযোগিতায় গোল করেন ফিরমিনো। আর তাতেই মেক্সিকোকে বিদায় জানিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে উঠে যায় সেলেকাওরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*