Saturday , 17 April 2021
আপডেট
Home » গরম খবর » এক-এগারোর বেনিফিশিয়ারি কিন্তু এই আওয়ামী লীগ: মির্জা ফখরুল
এক-এগারোর বেনিফিশিয়ারি কিন্তু এই আওয়ামী লীগ: মির্জা ফখরুল

এক-এগারোর বেনিফিশিয়ারি কিন্তু এই আওয়ামী লীগ: মির্জা ফখরুল

ডেস্ক রিপোর্ট: ‘বন্ধুগণ, একটা কথা আমাদের ভুলে গেলে চলবে না, এক-এগারোর বেনিফিশিয়ারি কিন্তু এই আওয়ামী লীগ’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শুক্রবার সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতনের প্রতিবাদে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) একাংশের উদ্যোগে আয়োজিত সংহতি সমাবেশে কথা বলছিলেন বিএনপি মহাসচিব।
এর আগে সকালে মহাখালী বাসস্ট্যান্ডে ঘরমুখো মানুষের ঈদযাত্রা পরিদর্শনে এসে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেশে এখন ওয়ান-ইলেভেনের ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছি। ওয়ান-ইলেভেনে যারা দেশকে ডি-পলিটিকেলাইজড (বিরাজনীতিকীকরণ) করতে চেয়েছিল, তাদের সহযোগী ছিল মিডিয়ার একটি অংশ। যারা (মিডিয়ার ওই অংশ) উসকানি দিয়ে (প্রধানমন্ত্রী) শেখ হাসিনার সরকারকে হটানোর চক্রান্ত করছে।’
এর কিছু পরেই জাতীয় প্রেসক্লাবে এক অনুষ্ঠানে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সাহেব একটি মারাত্মক কথা বলেছেন। এক-এগারোর পদধ্বনি তিনি শুনতে পাচ্ছেন। এরপরও আপনি (ওবায়দুল কাদের) সরকারে আছেন! এখনো পদত্যাগ করছেন না! সরকার আপনাদের আর আপনি এক-এগারোর পদধ্বনি শুনতে পাচ্ছেন?’
বিএনপি নেতা এ প্রসঙ্গে আরো বলেন, ‘এই ওবায়দুল কাদেরের সরকার এত বেনিফিশিয়ারি যে সরকারে যাওয়ার আগেই, আপনাদের নেত্রী (শেখ হাসিনা) বিদেশে যাওয়ার আগেই বলেছিলেন যে আমরা এই সরকারের মানে, এই ফখরুদ্দিন-মইনুদ্দিন অবৈধ সরকারের সব কর্মকাণ্ড বৈধ করে দেবো। দিয়েছেনও, পার্লামেন্টে আইন পাস করেছেন।’
এসময় বৃহস্পতিবার রাজধানীতে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের ঘটনার সঙ্গে জিয়া পরিবারকে জড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী যে বক্তব্য দিয়েছেন, তার নিন্দা জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর মুখে এ ধরনের কথা শোভা পায় না।’
এ ধরনের বক্তব্য বন্ধ করতেও সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে ফখরুল আরো বলেন, যারাই ভিন্ন মত পোষণ করছে, তাদের ওপরই নেমে আসছে নির্যাতনের খড়গ।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই ফ্যাসিস্ট সরকার একের এক ভিন্ন মতকে সরিয়ে দিচ্ছে। যারা তাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয় তাদের সরিয়ে দিচ্ছে। একটি নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে শিশু-কিশোরদের ওপর যেভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে, একইভাবে সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন করেছে। এই আন্দোলনের অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিলো না। বেঁচে থাকার প্রয়োজনে যারা নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে তাদের ওপর নির্যাতন করা হচ্ছে।
ফখরুল বলেন, তারা বলছে, আমরা নাকি উসকানি দিচ্ছি। আমরা উসকানি দেব কেন? আমরা আজকেও বলছি, নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকে আমরা পূর্ণ সমর্থন জানাই। শুধু তাই নয়, আমরা আহ্বান জানাচ্ছি নিরাপদ বাংলাদেশের দাবিতে আসুন ঐক্যবদ্ধ হই। আসুন, জনগণের জন্য একটি সুন্দর রাষ্ট্র নির্মাণ করি।
সমাবেশে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নাগিরক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহামুদুর রহমান মান্না, সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজী, আব্দুল হাই শিকদার, কাদের গণি চৌধুরী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*