Saturday , 17 April 2021
আপডেট
Home » আপডেট নিউজ » রাজধানীতে ৩৭ লক্ষাধিক টাকার অবৈধ ভিওআইপি সরঞ্জাম উদ্ধার
রাজধানীতে ৩৭ লক্ষাধিক টাকার অবৈধ ভিওআইপি সরঞ্জাম উদ্ধার

রাজধানীতে ৩৭ লক্ষাধিক টাকার অবৈধ ভিওআইপি সরঞ্জাম উদ্ধার

আজকের প্রভাত প্রতিবেদক : রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে মোবাইল অপারেটরের ১০ হাজার ৯৮৭টি অবৈধ সিম এবং ৩৭ লাখ টাকার অবৈধ ভিওআইপি সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে।
বাংলাদেশ টেলিযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এবং র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) যৌথভাবে গত ৯ সেপ্টেম্বর হতে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১৩ দিনে এই অবৈধ ভিওআইপি অভিযান পরিচালনা করে।
একই সময়ে প্রায় ৩৭ লক্ষাধিক টাকা মূল্যমানের অবৈধ ভিওআইপি সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অপরাধে ৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
সোমবার বিটিআরসির সম্মেলন কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ বিষয়টি গণমাধ্যমকর্মীদের জানান বিটিআরসির চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক। সংবাদ সম্মেলনে মো. জহুরুল হক এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।
এ সময় বিটিআরসির ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন্স বিভাগের ডিরেক্টর জেনারেল ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মুস্তাফা কামাল, অভিযানে সম্পৃক্ত আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, আন্তর্জাতিক কল আদান-প্রদানে সংশ্লিষ্ট আইজিডব্লিউ অপারেটরস ফোরাম (আইওএফ) ও বিভিন্ন মোবাইল অপারেটরের কর্মকর্তারা উপস্থিতিত ছিলেন।
বিটিআরসির চেয়ারম্যান জহুরুল হক বলেন, অবৈধ ভিওআইপি সরঞ্জামাদি উদ্ধারের জন্য ঢাকার মোহাম্মদ পুর, আদাবর, বাড্ডা এবং উত্তরা পশ্চিম থানার আবাসিক এলাকায় যৌথ অভিযান চালিয়ে বিভিন্ন অপারেটরের ১০ হাজার ৯৪৭ টি সিম এবং ৩৭ লাখ টাকার ভিওআইপি সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়েছে।
বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, বিটিআরসি অবৈধ ভিওআইপি শনাক্ত এবং একাজে ব্যবহৃত সরঞ্জমাদি জব্দের জন্য পিন পয়েন্ট ডিটেকশন ডিভাইস ব্যবহার করেছে। অত্যাধুনিক এই প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে আন্তর্জাতিক কল আদান-প্রদান সংশ্লিষ্ট খাত থেকে সরকারের ৫০ কোটিরও বেশি টাকা সাশ্রয় হয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, অভিযানকালে মোবাইল অপারেট টেলিটকের ৫ হাজার ৭৫টি, এয়ারটেল ও রবির ৩ হাজার ৮৯৭ টি, গ্রামীণফোনের ১ হাজার ৪১৪টি, বাংলালিংকের ৪২৬টি, পিএসটিএন অপারেটর র‌্যাংকসটেলে ১২০টি এবং ওয়াইম্যাক্সের অপারেটর বাংলালায়নের ১৫টি সিম জব্দ করা হয়।
এছাড়াও অভিযানে ৭২টি জিএসএম গেটওয়ে ও অন্যান্য আনুসঙ্গিক মালামাল জব্দ করা হয়েছে। যার বাজারমূল্য ৩৬ লাখ ৮০ হাজার টাকা।
বিটিআরসির নিয়ম অনুযায়ী অবৈধ ভিওআইপি কাজে ব্যবহারের জন্য মোবাইল অপারেটরের সিম পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট অপারেটরকে জরিমানা করা হয়। এই অভিযানে জব্দকৃত সিমের জন্য অপারেটরগুলোকে জরিমানা করা হবে কি না সাংবাদিকরা জানতে চাইলে বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, অবৈধ ভিওআইপি পরিচালনার জন্য অপারেটরগুলোর সিম পাওয়া গেলে ওই সংশ্লিষ্ট অপারেটরগুলোকে আগেও জরিমানা করেছে বিটিআরসি। এবারও করবে। আমি মনে করি তাদের সিম বাজারজাতকরণ ও সিম তদারকির কাজে সৃষ্ঠু মনিটরিং ব্যবস্থা কার্যকর নেই।
বিটিআরসি তার চলমান কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আধুনিক ও আর্ন্তজাতিক মানের প্রযুক্তি ব্যবহার করে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সহায়তায় বর্তমানে এ সংক্রান্ত অবৈধ কার্যক্রমে জড়িত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ব্যবহৃত সিমবক্সের সু-নিদির্ষ্ট স্থান (পিন পয়েন্ট) সনাক্তকরণে সক্ষমতা অর্জন করেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয়।
বিটিআরসি এই ধরনের অভিযান নিয়মিত পরিচালনা করবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*