Sunday , 11 April 2021
আপডেট
Home » শিল্প ও বাণিজ্য » নকল ফাবার ক্যাস্টেল পন্য শিশু স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক
নকল ফাবার ক্যাস্টেল পন্য শিশু স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক

নকল ফাবার ক্যাস্টেল পন্য শিশু স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকারক

আজকের প্রভাত ডেস্ক: সম্প্রতি বাংলাদেশের বাজারে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান নকল ফাবার ক্যাস্টেল পন্য পাওয়া গেছে। বাজার থেকে এসব নকল পন্য উদ্ধার করে পরীক্ষা করে দেখা গেছে, এসব পন্যগুলো শিশু স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক। ফাবার ক্যাস্টেল এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যেহেতু ফাবার ক্যাস্টেল পন্য বেশির ভাগ পন্য শিশুরা ব্যবহার করে থাকে, সেহেতু এসব পন্যগুলোতে সেই ধরনের উপাদান ব্যবহার করা হয়, যা সম্পূর্ন স্বাস্থ্যবান্ধব। জানানো হয়, ফাবার ক্যাস্টেল পেন্সিলে পরিবেশ বান্ধব ওয়াটার বেইজড বার্নিশ ব্যবহার করে. যা শিশুদের শরীরের জন্য ক্ষতিকর নয়। ফাবার ক্যাস্টেল রং পেন্সিলে শাকসবজি এবং ফলমূল হইতে সংগৃহীত রঞ্জক কণা ব্যবহার করে, এটি বিষমুক্ত হওয়ার কারণে শিশুদের জন্য ক্ষতিকর নয়। এছাড়াও পেন্সিলের লিড মজবুত করার লক্ষে প্রাকৃতিক মোম ব্যবহার করা হয়। ফাবার ক্যাস্টেল তাদের পণ্যে ব্যবহৃত কাঠ নিজস্ব বাগান থেকে সংগ্রহ করে এবং FSC সার্টিফিকেট প্রাপ্ত। ফাবার ক্যাস্টেল ইরেজারে কখনই PVC ব্যবহৃত হয় না, যেটি শিশুদের শরীরের জন্য ক্ষতিকর। ফাবার ক্যাস্টেল তাদের সকল প্লাস্টিক জাতীয় পণ্যে ¨ (Text Liner, Sketch Pen, Oil Pastel Boxes) ফুড গ্রেড প্লাস্টিক ব্যবহার করে, যেটি শিশুদের শরীরের জন্য নিরাপদ। ফাবার ক্যাস্টেল তাদের প্রস্তুতকৃত সমস্ত পণ্যের কাঁচামাল এবং ডিজাইন ঊঘ- ৭১ এর নির্দেশনা মোতাবেক করে থাকে। ঊঘ- ৭১ হচ্ছে ইউরোপীয়ান ইউনিয়নে বিক্রয়যোগ্যতার সবচেয়ে গ্রহনযোগ্য স্ট্যান্ডার্ড সার্টিফিকেশন।
বলা বাহুল্য, ফাবার ক্যাস্টেল ১৭৬১ সালে জার্মানির স্টেইন শহরে (নুরেমবার্গ) যাত্রা শুরু করে । প্রায় ২৫৭ বছরের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন এই ব্রান্ড সব সময়ই পন্যের গুনগত মান এবং শিশু স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরনে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে থাকে।
ফাবার ক্যাস্টেল তাদের ট্রেডমার্ক লোগো ব্যবহার করে সারা পৃথিবীতে অত্যন্ত সুনামের সাথে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে। ফাবার ক্যাস্টেল এর পন্যের মধ্যে রয়েছে, পেনসিল, কালার পেনসিল, ইরেজার, শাপনার, মার্কার, বোর্ড মার্কার, হাইলাইট মার্কার, অংকনসামগ্রি, জ্যামেকিবক্স, এবং বিভিন্ন অফিস স্টেশনারী। বাংলাদেশে ফাবার ক্যাস্টেল এর একমাত্র পরিবেশক হচ্ছে “গ্লোবাল অফিস অটোমেশন লিমিটেড”। বাংলাদেশে এই পন্য পরিবেশ বান্ধব কি না, তার মান যাছাই করে বিএসটিই ইতিমধ্যে সার্টিফিকেট দিয়েছে।
ফাবার ক্যাস্টেল পন্যের গুনগতমান এবং বিপুল পরিমান বাজার চাহিদা দেখে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী ফেবার ক্যাসেলের লগো ব্যবহার করে নকলপন্য তৈরী করে বিক্রয় করছে। নকল রংপেন্সিল ব্যবহার শিশুদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। নকল পন্যের বিক্রয়ের বিষয়ে জানতে পেরে গ্লোবার অফিস অটোমেশন মার্কেট তথ্য সংগ্রহ করে জানতে পারে কিছু অসৎ ব্যবসায়ী অধিক মুনাফালাভের আশায় এই কাজে করে আসছে।
গত ১২/১১/১৮ইং তারিখে নীলক্ষেত জিলানী মার্কেটের জেএস এন্টারপ্রাইজ এবং মেসার্স সালেহ ট্রেডার্স বিভিন্ন নকল ফাবার ক্যাস্টেল পন্য বিক্রয় করছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে তাহারা উক্ত নকল সামগ্রী বিক্রয় করিবে বলিয়া কোম্পানীল প্রতিনিধিদের হুমকী দেয়। বিষয়টি নিউমার্কেট থানার অফিসার ইনচার্জ কে অবহিত করলে তিনি একজন সাব-ইন্সেপেক্ট কে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন। সাব-ইন্সেপেক্ট মিলন মিয়া তার সঙ্গীয় ফোর্সসহ উক্ত প্রতিষ্টান দুটিতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমান নকল ফেবার ক্যাসেল পন্য সহ দুইজন আসামীকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসে।
অবশেষে ১২/১১/২০১৮ইং দিবাগত রাত ২২.৩০ঘটিকায় গ্লোবার অফিস অটোমেশন লিমিটেড এর পক্ষে মো: সোহেল রানা আকন্দ বাদী হয়ে ০৫জন করে আসামী করে নিউমার্কেট থানায় এজাহার দায়ের করেন। ০২জন আসামীকে গ্রেফতার দেখানো হয়। আসামীদের ৫দিনের রিমান্ড আবেদন মহানগর হাকিমের আদালতে প্রেরন করা হলে গত ১৩.১১.১৮ইং উভয়পক্ষের শুনানী শেষে “বিজ্ঞ ম্যাট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রিট আদালত জনাব আবু সাঈদ” সন্তুষ্ট হয়ে উভয় আসামীকে একদিনের রিমান্ড মঞ্জরি করেন। গত ১৫.১১.১৮ইং তারিখে রিমান্ড শেষে আসামীদের কোর্টে প্রেরন করা হলে উভয়পক্ষের শেষে আসামীদের জেলহাজতে প্রেরন করেন। মামলাটি তদন্তাধীন আছে।
মামলাটির সুপারভাইজার অতিরিক্ত ডেপুটি পুলিশ কমিশনার, রমনা জোন, আশরাফুল ইসলাম বলেন,নকল ফাবার ক্যাস্টেল পন্য নিয়ে যে মামলাটি নিউমার্কেট থানায় মো: সোহেল রানা আকন্দ বাদী হয়ে মামলা করেছেন তা খুবই গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। নকলপন্য ব্যবসার ফলে সরকার রাজস্ব হারাচ্ছে। এবং যেহেতু, এই পন্য স্কুলে ব্যবহার হয়ে থাকে সেহেতু নকল ফাবার ক্যাস্টেল পন্য শিশু স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত হুমকিস্বরূপ। তাই, শিশু স্বাস্থ্য নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে নকল ফাবার ক্যাস্টেল পন্যের ব্যবসা রোধ করার জন্য সব ধরনের আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*