Wednesday , 12 May 2021
আপডেট
Home » অনলাইন » ২০৩০ সালের মধ্যে শতভাগ লোকের কর্মসংস্থান : অর্থমন্ত্রী
২০৩০ সালের মধ্যে শতভাগ লোকের কর্মসংস্থান : অর্থমন্ত্রী

২০৩০ সালের মধ্যে শতভাগ লোকের কর্মসংস্থান : অর্থমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট: অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ২০৩০ সালের মধ্যে এ দেশের জনগণ শতভাগ কর্মসংস্থানের আওতায় আসবে। বর্তমানে আমাদের অর্থনীতি যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তাতে বাংলাদেশকে কেউ দমিয়ে রাখতে পারবে না। ২০৪১ সালের মধ্যে অর্থনৈতিকভাবে উন্নত দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান হবে ২০তম দেশের মধ্যে।
শনিবার জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন উপলক্ষে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ ও আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ এ অনুষ্ঠানের আয়োজক।
শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মো. রকিবুর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সংসদ সদস্য মাহমুদ-উস-সামাদ চৌধুরী, বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান জামালউদ্দিন আহমেদ।
অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী প্রায়শই আমাকে বলেন এদেশের বেদে, কামার-কুমার, তাঁতী, কৃষক শ্রমিক এদের প্রত্যেক পরিবারের যেন অন্তত একজনের চাকরির ব্যবস্থা হয়, সে ব্যবস্থা করে দাও। আমি বিশ্বাস করি, ২০৩০ সালের মধ্যে এ দেশের জনগণ শতভাগ কর্মসংস্থানের আওতায় আসবে।’
তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের দারিদ্র্যসীমার হার ২১ শতাংশ। ২০৩০ সালের মধ্যে এটাকে আমরা শূন্য বা ৩ শতাংশে নামিয়ে আনতে চাই। ২০৩০ সালে এদেশে কোনো মানুষ আর দরিদ্র থাকবে না।
তিনি বলেন, গত ১০ বছরে জিডিপির প্রবৃদ্ধিতে আমরা পৃথিবীর সবার উপরে, এটা বিশ্বব্যাংক, আইএমএফের তথ্য। ২০২৭ সালের মধ্যে পৃথিবীর ২৬তম দেশ হবে বাংলাদেশ। ২০৩০ সালের মধ্যে মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড এসব দেশের ওপর থাকবে বাংলাদেশ।
শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের মাধ্যমে প্রতি বছর ২০০ মেধাবী শিক্ষার্থীকে প্রধানমন্ত্রীর তরফ থেকে একটি করে ল্যাপটপ দেয়া হবে। যাতে এ মেধাবীরা আইটিতে জ্ঞান অর্জন করতে পারে।
একই অনুষ্ঠানে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, তার মন্ত্রণালয় থেকে প্রতি বছর ২০০ মেধাবী শিক্ষার্থীকে একটি করে ল্যাপটপ দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*